কোন ধরনের ভিডিও মানুষ বেশি দেখে । YouTube Channel Content Idea

ছবি: কোন ধরনের ভিডিও মানুষ বেশি দেখে । YouTube Channel Content Idea
কোন ধরনের ভিডিও মানুষ বেশি দেখে । YouTube Channel Content Idea

কোন ধরনের ভিডিও মানুষ বেশি দেখে: এই ৫ টি বিষয়ের উপর ইউটিউব চ্যানেল করুন-হয়ে যান লাখোপতি !

আপনি কি আপনার কাজের পাশাপাশি অনলাইন থেকে ইনকাম করতে চান? তাহলে একটি বাংলা ইউটিউব চ্যানেল খুলে ঘরে বসেই আপনি লাখ লাখ টাকা ইনকাম করতে পারেন। নিশ্চয়ই ভাবছেন সেটা কি করে সম্ভব? হ্যাঁ সেটা অবশ্যই সম্ভব কারণ এরকম ইনকাম অনেকেই করছে।

আপনি আপনার কম্পিউটার বা মোবাইল ফোন দিয়ে একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলতে পারেন খুব সহজে। তবে সব ধরনের ইউটিউব চ্যানেলে কিন্তু ইনকাম সেরকম আসবেনা। এই বিষয়টি আপনাকে প্রথমেই মাথায় রাখতে হবে যে কোন ধরনের ভিডিও মানুষ বেশি দেখে এবং সেই মতো জনপ্রিয় ক্যাটাগরিতে ইউটিউব নিশ আইডিয়া নিয়ে চ্যানেল খুলতে হবে।

তাই প্রথমেই জেনে নেয়া উচিৎ যে ইউটিউব এ কি কি বিষয়ে ভিডিও তৈরি করলে ভালো হবে।

আজকে সেরকমই কয়েকটি ইউটিউব ভিডিও তৈরীর আইডিয়া নিয়ে কথা বলব। এইসব কন্টেন্ট আইডিয়াগুলোতে চ্যানেল খুললে আপনার ইনকাম ১০০% আসবেই। আপনি যদি বুঝতে পারেন ইউটিউবে কোন ধরনের ভিডিও মানুষ বেশি দেখে  এবং সে সকল বিষয়ের উপর চ্যানেল খুলে নিয়মিত কাজ করতে পারেন তাহলে ইনকাম অনিবার্য।

চলুন তাহলে দেখেনি সেই সকল ইউটিউব কন্টেন্ট আইডিয়া বা ইউটিউব নিশ আইডিয়া  গুলো কি কি। নিচের লেখা পড়লেই ইউটিউব এ কি কি বিষয়ে ভিডিও তৈরি করলে ভালো হবে আপনি খুব পরিষ্কার ভাবেই বুঝে যাবেন। 

১.এক্সপেরিমেন্টাল ভিডিও বাংলা ইউটিউব চ্যানেল : 

আপনি বিভিন্ন ধরনের জিনিসের এক্সপেরিমেন্টাল ভিডিও বানিয়ে ইনকাম করতে পারেন। নিশ্চয়ই ভাবছেন- সেগুলো আবার কি ধরনের ভিডিও এবং সেগুলো কিভাবেই বা বানানো যায়।

ইউটিউব নিশ আইডিয়াগুলো পাওয়ার জন্য আপনি ইউটিউবেই সার্চ দিয়ে বের করতে পারেন। শিরোনাম দিবেন "এক্সপেরিমেন্টাল ভিডিও"। দেখবেন বিভিন্ন বাংলা ইউটিউব চ্যানেল এর হাজার হাজার ভিডিও আপনার সামনে হাজির হয়ে গেছে। এবার সেগুলো থেকে আপনি কিছু নিশ আইডিয়া নিয়ে নিন। ব্যাস, পেয়ে গেলেন ইউটিউব নিশ আইডিয়া। এবার আপনি আপনার নিজের মতো করে এই এক্সপেরিমেন্টাল ভিডিওগুলো বানিয়ে ফেলুন। 

বাংলা ইউটিউব চ্যানেল এর ভিউয়ার্সদের কাছে এই ধরনের ভিডিও অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়ে থাকে। আপনি এই ধরনের ভিডিও গুলো খুব সহজেই বানাতে পারেন এবং ইউটিউব থেকে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করতে পারেন।

তাহলে আর দেরি কেন, আজ থেকেই এক্সপেরিমেন্টাল একটি বাংলা ইউটিউব চ্যানেল করে ফেলুন এবং ভিডিও বানিয়ে আপলোড করতে শুরু করে দিন।

২. ফানি ভিডিও বাংলা ইউটিউব চ্যানেল: 

আমরা কিন্তু ফানি ভিডিও দেখতে সবাই পছন্দ করি। ভেবে দেখুন ফেসবুক সার্চের সময় বা ইউটিউব সার্চ করার সময় যদি কোন ফানি ভিডিও আপনার সামনে হাজির হয়, আপনি কিন্তু সেটা দেখা শুরু করেন এবং শেষ পর্যন্ত দেখতে বাধ্য হন। কারণ আমরা সবাই ফানি ভিডিও দেখতে পছন্দ করি।

হ্যাঁ, এই ধরনের ফানি ভিডিও আপনিও বানাতে পারেন। বাংলা ভিডিও ইউটিউব নিশ আইডিয়া পাওয়ার জন্য ওই একই কথা বলব- ইউটিউব সার্চ করে আইডিয়া গুলো নিতে পারেন এবং আপনি আপনার মত করেই ভিডিওগুলো বানিয়ে এবং সেগুলো কে এডিট করে ইউটিউব এ আপলোড দিতে পারেন।

তবে অবশ্যই কারো ভিডিও হুবহু নকল করবেন না। চেষ্টা করুন নতুন ধরনের ফানি ভিডিও বানাতে তাহলে ভিউয়ার্সরা আপনার ভিডিওগুলো পছন্দ করবে এবং আপনার চ্যানেল খুবই তাড়াতাড়ি জনপ্রিয় হয়ে উঠবে। 

ফানি ভিডিও বানানোর জন্য সাধারণত একটি টিম প্রয়োজন হয়। আপনি এর জন্য আপনার বন্ধুবান্ধবদের ভেতর থেকে যারা ফানি ভিডিওর বিষয়ে আগ্রহী তাদেরকে নিয়ে একটি টিম তৈরি করতে পারেন। তাছাড়া আপনার আত্মীয়স্বজনের ভেতর থেকেও অনেককে নিতে পারেন যারা এ ধরনের ভিডিওতে অংশ নিতে চায়।

তাহলে আর দেরি কেন আপনার হাতে থাকা অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলটি দিয়েই ফানি ভিডিও বানিয়ে ফেলুন এবং সে গুলোকে ইউটিউবে আপলোড দিয়ে অনলাইন ইনকাম করতে শুরু করুন।

৩. অনলাইন ইনকাম বাংলা ইউটিউব চ্যানেল

চ্যানেল: বর্তমান সময়ে অনলাইন ইনকাম কে না করতে চায়। এই ধরনের বাংলা ইউটিউব চ্যানেল খুবই জনপ্রিয় হয়ে থাকে। ঘরে বসে বাংলা ইউটিউব চ্যানেল বানিয়ে কে না ইনকাম করতে চায়। তাই অনলাইন ইনকাম এর জন্য এটি একটি চমৎকার ইউটিউব নিশ আইডিয়া। 

তাই, অনলাইন ইনকামের উপর বিভিন্ন ধরনের আইডিয়া সম্পর্কে ভিডিও তৈরি করুন এবং সে গুলোকে আপলোড করুন। দেখবেন, খুব তাড়াতাড়ি প্রচুর ভিউয়ার পাবেন এবং আপনার চ্যানেল টি খুব তাড়াতাড়ি জনপ্রিয় হবে এবং আপনি ইনকাম করতে পারবেন খুবই সহজেই।

এজন্য প্রথমে আপনাকে জানতে হবে অনলাইন ইনকামের জন্য ইউটিউবে কোন ধরনের ভিডিও মানুষ বেশি দেখে। এজন্য বিভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে আপনাকে অনলাইন ইনকামের উপরে প্রচুর পড়তে হবে এবং ইউটিউব থেকে ভিডিও দেখে আইডিয়া নিতে হবে। ইউটিউব কনটেন্ট আইডিয়া গুলো নেয়ার পর আপনি আপনার মত করে ভিডিও বানিয়ে সেগুলো কে আপলোড করবেন। 

মনে রাখবেন, অন্যের ভিডিও হুবহু কপি করা যাবে না। এসব করলে আপনি কপিরাইট স্ট্রাইক খাবেন এবং আপনার সাধের চ্যানেলটি বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

যে কোন ইউটিউব কন্টেন আইডিয়ার ভিডিও বানানোর ব্যাপারে এই বিষয়টি প্রথমেই মাথায় রাখবেন। নিজের সৃষ্টিশীলতাকে কাজে লাগিয়ে ভিডিও তৈরীর আইডিয়া বের করুন। তাহলে আপনিও হয়ে উঠতে পারবেন জনপ্রিয় ইউটিউবার। আপনার চ্যানেল টি যদি জনপ্রিয় হয়, অন্য অনেক ইউটিউবার এর মতই আপনিও লক্ষ লক্ষ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

৪. প্রডাক্ট রিভিউ বাংলা ইউটিউব চ্যানেল: 

বিভিন্ন ধরনের প্রোডাক্টের রিভিউ এর উপরে আপনি একটি বাংলা ইউটিউব চ্যানেল বানাতে পারেন। এই ধরনের চ্যানেলের প্রচুর জনপ্রিয়তা রয়েছে। আপনি সংশ্লিষ্ট প্রোডাক্টের ফ্রি ভিডিও সংগ্রহ করুন অথবা প্রোডাক্ট গুলো নিয়ে আপনার এন্ড্রয়েড ফোন দিয়ে সেগুলোর রিভিউ ভিডিও শুট করুন। 

কোন প্রোডাক্টের রিভিউ করার আগে অবশ্যই সেই প্রডাক সম্পর্কে খুব ভালো করে পড়াশোনা করে নিবেন। কারণ প্রোডাক্ট সম্পর্কে ভুল ইনফরমেশন দিলে দর্শকরা আপনার চ্যানেলকে বয়কট করবে। তাই এই বিষয়টি মাথায় রেখেই প্রডাক্ট রিভিউ চ্যানেল বানাবেন।

এই ধরনের চ্যানেল থেকে বিভিন্ন উপায়ে ইনকাম করা যায়। ইউটিউব মনিটাইজেশন ছাড়া ও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার হিসেবে আপনি কাজ করতে পারেন। তাছাড়া সংশ্লিষ্ট প্রোডাক্টের মালিকদের সঙ্গে যোগাযোগ করুন। আপনার চ্যানেল জনপ্রিয় হলে, প্রডাক্ট মালিকরাই আপনার পেছনে টাকা খরচ করে আপনাকে দিয়েই ভিডিও বানাবে।

৫. টেকনোলজি ভিডিও বাংলা ইউটিউব চ্যানেল: 

আপনার যদি টেকনোলজিক্যাল বিষয়ে ভালো জ্ঞান থাকে অথবা আপনি যদি এই বিষয়টি সম্পর্কে আগ্রহী থাকেন তাহলে একটি টেকনোলজিক্যাল চ্যানেল করতে পারেন। এই ধরনের চ্যানেলের তুমুল জনপ্রিয়তা রয়েছে।

এখন টেকনোলজির যুগ, আমাদের প্রতি মুহূর্তেই টেকনোলজিক্যাল জ্ঞানের প্রয়োজন। যখনই টেকনোলজির বিষয়ে আমরা কোন কিছু জানতে চাই, আমরা কিন্তু প্রথমেই ইউটিউব সার্চ করি। বুঝতেই পারছেন, তাহলে টেকনোলজিক্যাল চ্যানেলের কতটা চাহিদা রয়েছে।

আপনি হয়তো ভাবছেন টেকনোলজি বিষয়ে আপনি এতটা পারদর্শী নয়। যারা ভিডিও বানাচ্ছে তারা সবাই কিন্তু পারদর্শী নয়। সবাই ভিডিও বানানোর আগে এ বিষয়ে পড়াশোনা করছে এবং ইউটিউব থেকেই আইডিয়া নিচ্ছে। এবং তারপরই একটি ভিডিও বানাচ্ছে।

সুতরাং আপনি নয় কেন। আপনি ইচ্ছা করলে একটি টেকনোলজিক্যাল বাংলা ইউটিউব চ্যানেল বানাতে পারেন। হ্যাঁ, তাহলে খুব তাড়াতাড়িই আপনার চ্যানেলটি জনপ্রিয় হবে, এতে করে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম এর পাশাপাশি আপনার টেকনোলজির বিষয়েও আস্তে আস্তে জ্ঞানের পরিধি বাড়তে থাকবে। আর যার টেকনোলজির বিষয় যার জ্ঞান আছে, এই যুগে তার টাকার অভাব নেই।

সুতরাং, টেকনোলজিক্যাল চ্যানেল আপনাকে অবশ্যই লাখ লাখ টাকার পথ দেখাতে পারে বলেই আমার বিশ্বাস।

আজ যে সকল আইডিয়া নিয়ে আলোচনা করলাম সেটা থেকেই আপনি বুঝে গেছেন কোন ধরনের ভিডিও মানুষ বেশি দেখে এবং ইউটিউব এ কি কি বিষয়ে ভিডিও তৈরি করলে ভালো হবে। এই নিশ আইডিয়াগুলোর মাধ্যমে ইউটিউব থেকে আয় করার ৫টি উপায় আপনি জেনে গেছেন। এই কন্টেন্ট আইডিয়া গুলো কাজে লাগানোর দায়িত্ব আপনার। সুতরাং বসে না থেকে কাজে নেমে পড়ুন এখনই। একটি বাংলা ইউটিউব চ্যানেল প্রতিষ্ঠা করুন আজই।  

তবে হ্যাঁ, এছাড়াও আরো অনেক ইউটিউব বাংলা চ্যানেল নিশ আইডিয়া আছে। সেগুলো নিয়ে সামনে কোন একটি লেখায় আলোচনা করব। আমি মনে করি, এই পাঁচটি  ইউটিউব কনটেন্ট আইডিয়ার যেকোনো একটি আপনি বাছাই করে সেই বিষয়ে একটি বাংলা ইউটিউব চ্যানেল করলে একসময় লাখ লাখ টাকা ইনকাম করা আপনার জন্য খুব একটা কঠিন হবে না। 

মনে রাখবেন, আপনাকে প্রথমদিকে ধৈর্য ধরে কাজ করে যেতে হবে। আজ চ্যানেল খুললেন, কাল থেকেই ইনকাম শুরু হয়ে যাবে, এই বিষয়টি মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলুন। যদি কেউ এটা বলে থাকে, তাহলে সেটা ভুল বলেছে। ভুল থেকে সরে এসে বাস্তবতার মুখোমুখি হন।

তাই ধৈর্য ধরে কাজ করুন, লেগে থাকুন। অবশ্যই , আপনিও একদিন লাখ লাখ টাকা ইনকাম করতে পারবেন ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন